টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল শুরু

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল শুরু

কক্সবাজার প্রতিনিধি: অবশেষে টেকনাফ থেকে ৬১০ জন যাত্রী নিয়ে সেন্টমার্টিন পৌছেছে পর্যটকবাহী দুই জাহাজ এমভি পারিজাত ও এমভি রাজহংস। এর আগে নয় মাস এই রুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ ছিল। শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) সকাল পৌনে ১০টার দিকে টেকনাফের দমদমিয়া ঘাট থেকে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে জাহাজ দুটি ছেড়ে যায়, যা পৌঁছে দুপুর ১২টার দিকে।

এরআগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় জাহাজ চলাচলের সিদ্ধান্তের কথা জানান জেলা প্রশাসক মুহম্মদ শাহীন ইমরান।

তিনি জানান, গত ১১ জানুয়ারি নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আন্তঃমন্ত্রণালয়ের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সংশ্লিষ্ট সকল মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তর, দপ্তরের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত সভায় টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচলের বিষয়ে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত হয়। তারই আলোকে আজ সকাল থেকে দুটি জাহাজ চলাচলের অনুমতি দেয়া হয়। আগামীকাল শনিবার (১৪ জানুয়ারি) থেকে লাইসেন্স ও ফিটনেস আছে এমন সকল জাহাজ চলবে বলেও জানান জেলা প্রশাসক।

জেলা প্রশাসক মুহম্মদ শাহীন ইমরান জানান, এ ক্ষেত্রে জাহাজ কর্তৃপক্ষকে কিছু শর্ত দেয়া হয়েছে তা না মানলে জাহাজ চলাচলের অনুমতি বাতিল করা হবে। শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে: ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী নেয়া যাবে না। জাহাজে পর্যাপ্ত ঝুড়ি রাখতে হবে, যাতে চিপস বা কোন পলিথিন ও প্লাস্টিক সাগরে না ফেলে এবং প্রতিটি জাহাজে এ বিষয়ে সতর্কতামূলক প্ল্যাকার্ড দিতে হবে। সেন্টমার্টিন দ্বীপের প্লাস্টিক বর্জ্য জাহাজে করে এপারে নিয়ে আসতে সাহায্য করতে হবে। পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য যাতে ধ্বংস না হয় এ বিষয়ে সচেতন করতে জাহাজে প্রচারণা চালাতে হবে। এরকম আরো কয়েকটি অবশ্যই পালনীয় শর্ত সাপেক্ষে জাহাজ চলাচলের অনুমতি দেয়া হয়েছে। যার ব্যত্যয় ঘটলে অনুমতি বাতিল করা হবে বলে জানান জেলা প্রশাসক।

সেন্টমার্টিনগামী রাজহংস ও এম ভি পারিজাত জাহাজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও স্কোয়াব সভাপতি তোফাইল আহমদ জানান, প্রশাসনের অনুমতির পর শুক্রবার থেকে ৬১০ জন পর্যটক নিয়ে চলাচল শুরু হয়েছে। জাহাজ চলাচলের পর দ্বীপবাসী ও পর্যটন সংশ্লিষ্টদের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো.  কামরুজ্জামান বলেন, শুক্রবার পৌনে ১০টার দিকে দুটি জাহাজ টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছে। তবে জাহাজের যাত্রী ধারণ ক্ষমতার বেশি ছিল না। আগামীকাল থেকে অনুমতি দেয়া বাকি জাহাজগুলো চলাচল করবে।

বিনিয়োগবার্তা/এসএইচ/এসএএম//


Comment As:

Comment (0)