Responsive image

কোন মুক্তিযোদ্ধার খেতাব কেড়ে নেওয়া মুক্তিযুদ্ধকে অস্বীকার করার শামিল

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগবার্তা: মুক্তিযোদ্ধারা এদেশের সূর্য সন্তান। তাঁদের সীমাহীন আত্মত্যাগই আমাদেরকে এনে দিয়েছে মানচিত্রে একটি স্বাধীন দেশ। কোন মুক্তিযোদ্ধার পরবর্তী কোন ভূমিকা কারোর নিকট প্রশ্নবিদ্ধ মনে হলেও মুক্তিযুদ্ধে তাঁর অবদানকে অস্বীকার করার সুযোগ নেই। মুক্তিযোদ্ধারা যদি সেদিন জীবন বাজি রেখে সশস্ত্র যুদ্ধে অবতীর্ণ হতে না পারতেন তাহলে আমাদের স্বাধীনতার সূর্য কোনদিন উদিত হতে পারত কিনা তাতেও সন্দেহ আছে। কাজেই এ সূর্য সন্তানদের নাম ইতিহাস থেকে মুছে দেওয়ার চেষ্টা আর জাতির ইতিহাসকে অস্বীকার করা একই কথা। মুক্তিযোদ্ধাদেরকে প্রদত্ত খেতাব যুদ্ধকালীন সময়ে তাঁদের অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ। এই খেতাব কেড়ে নেওয়ায় যুদ্ধকালীন সময়ে তাঁর অবদানকে অস্বীকার করার শামিল। ফলে মুক্তিযুদ্ধকেও অস্বীকার করার শামিল।

বুধবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এই বক্তব্য প্রদান করেন সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সামছুল আলম।

বিবৃতিতে কমরেড সামছুল আলম বলেন, নিশি রাতের এ সরকার জনগণের ভোটাধিকার, মানবাধিকার, সভা-সংগঠনের অধিকার, রাজনীতি করার অধিকার সমস্ত কিছু কেড়ে নিয়েছে। বাংলাদেশকে তারা দুর্নীতির স্বর্গরাজ্য বানিয়ে ফেলেছে। লক্ষ লক্ষ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে বেগমপাড়া নির্মাণ করছে। গণতন্ত্র, নির্বাচন ব্যবস্থা ও রাজনীতিকে কবরে পাঠিয়ে দিয়েছে। উন্নয়নের প্রপাগান্ডা চালিয়ে সদা লুটপাটে ব্যস্ত এ অবৈধ সরকার জনগণের সৃষ্টি অন্যত্র ঘুরিয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে একজন বীর উত্তম খেতাবধারী বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান এর খেতাব কেড়ে নেওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক এ অপচেষ্টার বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে এ অপচেষ্টা বন্ধ করার আহ্বান জানান।

(ডিএফই/১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১)

Short URL: https://biniyougbarta.com/?p=137720

সর্বশেষ খবর