Responsive image

টেলিভিশনের পর্দায় দেখা গেলেও জনগণের পাশে নেই বিএনপি ও তাদের মিত্ররা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগবার্তা: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বিএনপি ও তাদের মিত্রদের টেলিভিশনের পর্দায় দেখা গেলেও জনগণের পাশে তারা নেই। তারা নিজেরা কোনো কাজ করে না শুধু অন্যের ভুল ধরাই তাদের কাজ, তাই আমি তাদের নাম দিয়েছি ‘ভুল ধরা পার্টি’।’

শনিবার দুপুরে মন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকা চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় মরহুম এডভোকেট নুরুচ্ছফা তালুকদার অডিটোরিয়ামে ড. হাছান মাহমুদের পারিবারিক প্রতিষ্ঠান এনএনকে ফাউন্ডেশনের চলমান করোনাকালীন উদ্যোগে  দিনমজুর ও দরিদ্রদের মাঝে খাদ্র্যসামগ্রী বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

ড. হাছান বলেন, ‘মাঝে মধ্যে তাদের (বিএনপি ও মিত্রদের) ঢাকা শহরে প্রেসক্লাবের সামনে, সংবাদ সম্মেলন করার জন্যে নয়াপল্টনে অথবা বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে দেখা যায় নতুবা ঘর থেকে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে সরকারের সমালোরচনা করেন তারা। এছাড়া তাদেরকে সমগ্র বাংলাদেশের কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা।’

‘আমরা যে কাজ করছি, সেটাতে কোনো ভুল আছে কিনা, শুধু সেটাই তারা খুঁজে বেড়ায়, নিজেরা কোনো কাজ করে না, তাই আমি তাদের নাম দিয়েছি- ভুল ধরা পার্টি’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই ধরণের ভুল ধরা পার্টি রাঙ্গুনিয়ায়ও আছে, তাদেরকে এখন দেখা যাচ্ছে না, ভোটের সময় দেখা যাবে। তখন তাদের জিজ্ঞেস করতে হবে, এতদিন তারা কোথায় ছিল?’

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে করোনার প্রথম ঢেউয়ে সরকারের পক্ষ থেক সাত কোটির বেশি মানুষকে ত্রাণ দেয়া হয়েছিল, আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ১ কোটি ২৫ লাখ মানুষকে ত্রাণ দেয়া হয়েছিল, এর বাইরেও অনেকে ব্যক্তিগতভাবে ত্রাণ দিয়েছিল, জানান ড. হাছান। তিনি বলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়েও মেহনতি মানুষের দল আওয়ামী লীগ গরীব মানুষের পাশে আছে, ত্রাণ দিচ্ছে, কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছে।

এনএনকে ফাউন্ডেশনের সমন্বয়কারী আবদুর রউফ মাষ্টারের সভাপতিত্বে ও এমরুল করিম রাশেদের সঞ্চালনয়ায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান স্বজন কুমার তালুকদার, ইউএনও মাসুদুর রহমান এবং মেয়র শাহজাহান সিকদার ।

এদিন রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা, চন্দ্রঘোনা, মরিয়মনগর, পদুয়া ও শ্রীপুর-খরন্ধীপ ইউনিয়নের দুই হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। ক্রমান্বয়ে দশ হাজার পরিবারে এসহায়তা পৌঁছে দেয়া হবে বলে জানান এনএনকে ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তারা।

এর পরপরই তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ সভায় বক্তব্য রাখেন, কৃষকদের হাতে কম্বাইন্ড হার্ভেস্টারের চাবি তুলে দেন ও গুমাইবিলে বোরো ধানকাটা উদ্বোধন করেন। এসময় সরকারি-বেসরকারি সকল সহায়তা দরিদ্র মানুষের কাছে পৌঁছে দেবার জন্য দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ।

(এসএএম/০১ মে ২০২১)

Short URL: https://biniyougbarta.com/?p=143680

সর্বশেষ খবর