Responsive image
সর্বশেষ সংবাদ:

পূর্বাচলে বাণিজ্য মেলা: ঢাকা- জয়দেবপুর বাইপাস সড়কে বিকল্প ব্যবস্থা রাখা উচিত

মো: সিরাজুল ইসলাম:  আসছে মার্চ মাসে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে পূর্বাচলে নির্মিত বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ভবনে। শেষ পর্যন্ত করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলে এবং পরিবেশ পরিস্থিতি অনুকূল থাকলে হয়তো এখানেই এবার মেলাটি অনুষ্ঠিত হবে। কোন কারণে এবার সম্ভব না হলে নিশ্চয়ই আগামী বছর থেকে নিয়মিত মেলা হবে। ভবনটি বাইরে থেকে দেখতে খুবই সুন্দর এবং ভিতরে পার্কিংসহ প্রচুর জায়গাও আছে। মেলা শুরু হলে দেখারও সুযোগ হবে আশা করি। চীন সরকারের অনুদানে ভবনটি নির্মিত হয়েছে। চীন সরকার এবং চীনের জনগণ এর জন্য অবশ্যই ধন্যবাদ পাওয়ার দাবিদার। তাঁদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ।

পূর্বাচলে মেলা আয়োজনের বড় সুবিধা হলো সারা বছর ধরেই এখানে বিভিন্ন ধরনের শিল্প/পণ্যের প্রদর্শনী করা যাবে। শীত বা বর্ষার কোন সমস্যা থাকবে না। প্রতিবছর এক মাসের জন্য অস্থায়ী বাণিজ্য মেলার পেভিলিয়ন তৈরিতে এবং মেলা শেষে সরিয়ে নিতে যে কর্মযজ্ঞ করতে হয়-তা প্রয়োজন পড়বে না। ব্যবহারকারিগণ নির্দিষ্ট ভাড়ার বিনিময়ে তাদের পণ্য প্রদর্শণ ও বিক্রি করতে পারবেন। মেলায় যাঁরা বেড়াতে এবং কেনা-কাটা করতে আসবেন তাঁরাও নিশ্চয় অনেক আরাম বোধ করবেন। আগারগাঁও এর মত এখানে ধূলাবালি উড়বে না-পানিও ছিটাতে হবে না।

মেলা ভবনটির অবস্থান ঢাকার অদূরে পূর্বাচল উপশহরের সম্ভবত: ৪ নম্বর সেক্টরে শীতলক্ষ্যা নদীর উপর নির্মিত কাঞ্চন ব্রীজের নিকটে ঢাকা-জয়দেবপুর বাইবাস সড়কের ঠিক উপরে। ভবনের সীমানা প্রাচীর এবং বাইপাস সড়কের মধ্যে কোন দূরত্বই নেই। মেলার দর্শনার্থীগণ যেদিক থেকেই আসবেন বাইপাস সড়ক থেকে নেমে সামান্য দূরত্বে নির্মিত গেইট দিয়ে মেলা ভবন চত্বরে প্রবেশ করবেন।

ঢাকা-জয়দেবপুর বাইপাস সড়কটি তৈরি করা হয়েছিল মূলত চট্রগ্রাম থেকে উত্তরবঙ্গগামী যানবাহন বিশেষ করে মালবাহী ট্রাক যাতে ঢাকায় না ঢুকে সহজে চলাচল করতে পারে সেই বিষয়টি মাথায় রেখে। এর সুফলও পাওয়া গেছে। এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন অসংখ্য ট্রাক ও অন্যান্য যানবাহন চলাচল করে। এই রাস্তা দিয়ে চলাচলকারি যানবাহনের সংখ্যা এত বেশি যে প্রায়শ: সড়কটিতে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। সার্বিক বিবেচনায় সরকার এই রাস্তাটিকে প্রশস্ত করার উদ্যোগও গ্রহণ করেছেন।

বাণিজ্য মেলার ভবনটির অবস্থানগত কারণে এবং বাণিজ্য মেলায় সাধারণত যে সংখ্যক দর্শনার্থী সমাগম হয়- সেই অভিজ্ঞতার আলোকে ভবনটিতে মেলা আয়োজনের পূর্বেই যানচলাচল বিশেষ করে ঢাকা-জয়দেবপুর বাইপাস সড়কে চলাচলকারি মালবাহী ট্রাকের ব্যবহারের জন্য বিকল্প রাস্তার ব্যবস্থা করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবরে অনুরোধ করছি। তা না হলে যে অচলাবস্থার সৃষ্টি হবে তাৎক্ষণিকভাবে তার সমাধান করা সম্ভব হবে বলে মনে হয় না।

বিশ্লেষক: নির্বাহী চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)।

(এসএএম/২৪ জানুয়ারি ২০২১)

 

Short URL: https://biniyougbarta.com/?p=135739

সর্বশেষ খবর