Responsive image

বিদেশিরা সরকারের বড় বড় প্রকল্পে বিনিয়োগে আগ্রহী

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগবার্তা: বিদেশি বিনিয়োগকারীরা সরকারের বড়-বড় প্রজেক্টে স্বল্প সুদে বিনিয়োগে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিএসইসির মাল্টিপারপাস হলে আয়োজিত দুবাইয়ে ৪ দিনব্যাপি রোড-শো পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে দুবাইয়ের রোডশোর বিস্তারিত তুলে ধরেন বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক মো: মাহবুবুল আলম। এসময় অনান্যের মধ্যে বিএসইসির পরিচালক ফারহানা ফারুকী, উপ পরিচালক শেখ লুৎফুল কবিরসহ কমিশনের অনান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বিএসইসির চেয়ারম্যান জানান, বিদেশিরা পাওয়ার প্লান্ট ও অবকাঠামো খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী। কিছু কিছু মিউচ্যুয়াল ফান্ডেও ইনভেস্ট করতে চায় তারা। সেখানে কি কি কারেকশন দরকার সেটার বিষয়ে তারা আমাদেরকে সাজেশন দিয়েছেন। তবে তারা শর্টটার্মে নয়, লংটার্মে বিনিয়োগে আসতে চায়।

অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত বলেন, আমাদের যে প্রজেক্টগুলো আসছে সেগুলোর সাইজ ৫০০ কোটি, হাজার কোটি, দুই হাজার কোটি, চার হাজার কোটি। শুধু ইক্যুইটি মার্কেট দিয়ে এর কোনো সমাধান দেয়া সম্ভব নয়; তাই আমরা বন্ডকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছি। একমাত্র বন্ডের মাধ্যমে আমাদের এই সলিউশন দেয়া সম্ভব।

তিনি বলেন, আমরা যখন দুবাইয়ে প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করলাম, তার ঠিক পরপরই বিনিয়োগকারীদের বেশ কয়েকজন আমাদের সাথে আলাদা আলাদা মিটিং করেছে। তারা সবাই বড় মাপের ইনভেস্টর যাদের ট্রিলিয়ন, ট্রিলিয়ন ফান্ড রয়েছে। তারা ইনভেস্টমেন্টের জন্য ভালো জায়গা খুজছে।

তিনি বলেন,  দুবাইয়ের রোড-শো’তে আমরা বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থার চিত্র তুলে ধরেছি। পাশাপাশি এ দেশে বিনিয়োগে রিস্ক ও রিটার্ণের বিষয়গুলোও তাদের সামনে তুলে ধরেছি। কিছু কিছু জায়গায় ওরা আমাদের অনেক প্রশ্ন করেছেন এবং আমাদেরকে অনেক পরামর্শও দিয়েছেন।

বিএসইসির চেয়ারম্যান বলেন, বৈশ্বিক বিনিয়োগ সম্ভাবনার মাপকাঠিতে বাংলাদেশ এখন বিবি মাইনাস (BB-) রেটিংয়ে অবস্থান করছে। রেটিংয়ের এই লেভেলটি বিনিয়োগের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত।  তাই আমরা বিদেশি ও প্রবাসীদেরকে এখনই বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছি।

বিএসইসির চেয়ারম্যান বলেন, আগে বাংলাদেশের প্রতি বিদেশিদের একটা নেগেটিভ ভাবমূর্তি ছিল। এখন সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্ঠায় সেটি অকেটাই কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছি। আমরা চেষ্টা করছি দেশের সঠিক পজিশনটা সবার কাছে তুলে ধরতে। বিদেশিরা আমাদের ডেটা দেখে অবাক হয়ে যায়। বাংলাদেশের সাম্প্রতিক অগ্রগতি তাদের কাছে বিস্ময়ের মতো মনে হয়।

তিনি আরও বলেন, আমরা দুবাইয়ে সফলভাবে রোডশো করতে পেরেছি। এরপর ধারাবহিকভাবে সৌদি আরব, সুইজারল্যান্ড, লন্ডন, নিউইয়র্ক, হংকং বা সিঙ্গাপুরের মতো বড় বড়  জায়গায় এ ধরনের আয়োজনের পরিকল্পনা করছি আমরা। এসব আয়োজনের মাধ্যমে আমরা যদি বাংলাদেশের সঠিক তথ্য বিদেশিদের কাছে, বিয়োগকারীদের কাছে, বিদেশের সংবাদপত্র বা ব্যবসায়ীদের সামনে তুলে ধরতে পারি তাহলে বাংলাদেশ সম্পর্কে তাদের ধারণা আরো পরিষ্কার হবে।  এরফলে দেশে বিদেশি বিনিয়োগ আরো তরান্বিত হবে।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, আগামী বাজেটে (২০২১-২২) পুঁজিবাজারের জন্য ৮টি প্রস্তাবনা রাখা হবে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো হচ্ছে: ভালো কোম্পানি তালিকাভুক্তিতে কর্পোরেট করের ব্যবধান সাড়ে ৭ শতাংশ থেকে ১৫ শতাংশে উন্নিত করা। মার্জিন ঋণের সুদহার ১২ শতাংশ থেকে আরো কমিয়ে আনা। মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর কর কমানো। দ্বৈত কর প্রত্যাহার। আইসিবিকে পূনর্গঠনের জন্য বিশেষ ফান্ডসহ আরো কিছু প্রস্তাব থাকবে।

(এসএএম/২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১)

 

Short URL: https://biniyougbarta.com/?p=138002

সর্বশেষ খবর