Responsive image
সর্বশেষ সংবাদ:

সম্মেলন করবে ইএসডিপি ঢাকার উদ্যোক্তারা

শামীম আল মাসুদ, বিনিয়োগবার্তা: উদ্যোক্তা সম্মেলন করার উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) এর আওতাভূক্ত ‘উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প (ইএসডিপি)’ থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত  ঢাকা জেলার উদ্যোক্তারা। আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ দিকে রাজধানীতে এ সম্মেলন করতে চায় তারা। এলক্ষ্যে সার্বিক কর্মপরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, দেশে নতুন উদ্যোক্তা তৈরি ও বিদ্যমান ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাসে ‘তারুণ্যের শক্তি, বাংলাদেশের সমৃদ্ধি’ শীর্ষক একটি প্রকল্প হাতে নেয় বিডা। প্রাথমিকভাবে প্রকল্পটিতে ব্যয় ধরা হয় ৪৯ কোটি ৫০ লাখ টাকা। প্রকল্পটির আওতায় সারাদেশ থেকে উদ্যোক্তা হতে আগ্রহী এমন ২৪ হাজার শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতীকে প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়। প্রশিক্ষণ নেওয়ার জন্য ন্যূনতম যোগ্যতা এইচএসসি পাস ও বয়স ১৮-৪৫ বছর নির্ধারণ করা হয়। ওই বছরের জানুয়ারি মাসে প্রকল্পটি ঘোষণা করা হলেও মূলত আনুষ্ঠানিকভাবে এর কার্যক্রম শুরু হয় একই বছরের মার্চ মাসে। পর্যায়ক্রমে দেশের সবকটি জেলায় বিস্তৃত হয় প্রকল্পটির কার্যক্রম।

ইএসডিপি ঢাকা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রকল্পের কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর থেকেই পুরোদমে কাজ শুরু করে ঢাকা জেলা ইএসডিপি। এ পর্যন্ত এ জেলার আওতায় অন্তত ৪ হাজার ৬০০ জন উদ্যোক্তা রেজিস্ট্রেশন করেছেন। আর ১৪টি ব্যাচের আওতায় এ পর্যন্ত প্রায় চারশ প্রশিক্ষনার্থী প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। তাদের মধ্য থেকে ইতোমধ্যে উদ্যোক্তা হয়ে উঠেছেন ১০০ জন। স্ব স্ব প্রকল্পে তাদের বিনেয়াগের পরিমাণ দাড়িয়েছে ৫২ কোটি ২৭ লক্ষ টাকা। আর তাদের মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে অন্তত এক হাজার ৬শ লোকের। এছাড়া ঢাকা জেলার আওতায় আরো বেশ কিছু উদ্যোক্তা তাদের ব্যবসায়িক পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করে চলেছেন।

জানতে চাইলে ইএসডিপি ঢাকা জেলার সমন্বয়ক আল্পনা ফেরদৌসী বীথি বিনিয়োগবার্তাকে জানান, প্রকল্পের শুরু থেকেই আমরা এর মূল উদ্দেশ্য পূরণে সচেষ্ট রয়েছি। ইতোমধ্যে ঢাকা জেলায় শতাধিক উদ্যোক্তা পুরোদমে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। এসবের মধ্যে কৃষি, তথ্যপ্রযুক্তি (আইটি), প্লাস্টিক, চামড়া, পোশাকসহ বিভিন্ন খাতের উদ্যোক্তারা রয়েছেন।

তিনি জানান, শুধু প্রশিক্ষণ দেওয়াই নয়; বরং প্রশিক্ষনার্থীদেরকে তাদের লক্ষ্য পূরণে সর্বাত্নক সহযোগিতা করে আসছি আমরা। উদ্যোক্তাদের তৈরি পণ্যের বাজারজাত করা, মার্কেটপ্লেস তৈরি, ব্যাংক ঋণ পেতে সহযোগিতাসহ যাবতীয় বিষয়ে প্রয়োজনে স্ব শরীরে উপস্থিত থেকে কাজ করেছি। প্রয়োজনে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা নিয়েছি। এতে নতুন উদ্যোক্তারা অনেক উৎসাহিত হয়েছেন। প্রকল্প চলমান থাকলে ভবিষ্যতেও আমাদের পক্ষ থেকে এ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

এদিকে উদ্যোক্তা সম্মেলন করার উদ্যোগ নিয়েছেন ‘উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প (ইএসডিপি)’ থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ঢাকা জেলার উদ্যোক্তারা। আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহে রাজধানীতে Dhaka District Entrepreneurs Meet- 2021’ নামে এ সম্মেলনটি করতে চায় তারা। এলক্ষ্যে সার্বিক কর্মপরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হয়েছে।

জানা গেছে, ইএসডিপি নিবন্ধিত ঢাকা জেলার উদ্যোক্তাদের সম্মেলন উপলক্ষ্যে রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রতি ব্যাচ থেকে ৩ থেকে ৫ জন উদ্যোক্তা এই কার্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত রয়েছেন। অনুষ্ঠানের সার্বিক সফলতার জন্য ১০টি উপ- কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া হোয়াটসঅ্যাপেও একাধিক গ্রুপ (https://chat.whatsapp.com) গঠন করে এই কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। উপ-কমিটিগুলো হলো: ১. রেজিস্ট্রেশন কমিটি, ২. ভেন্যু কমিটি, ৩. ডিজাইন এন্ড ডেকোরেশন কমিটি, ৪. লজিস্টিকস কমিটি, ৫. ফুড কমিটি, ৬. স্পনসর এন্ড এডভার্টাইসমেন্ট কমিটি, ৭. ভলান্টিয়ার কমিটি, ৮. পাবলিকেশন কমিটি, ৯. রিসেপশন কমিটি এবং ১০. গিফট এন্ড অ্যাওয়ার্ড কমিটি।

অনুষ্ঠানটিকে সার্থক ও সফল করার জন্য প্রয়োজনে যোগাযোগ করতে নিম্নোক্ত ব্যক্তিবর্গের নাম ও ফোন নম্বর: নাহিন ইমরান (ব্যাচ-১০) – ০১৭১৫২০৫৮৩৫, মাসুদ (ব্যাচ নং -৩) – ০১৭৫০০০২০৬০, ফুয়াদ (ব্যাচ নং -১৩) মো:০১৭৭৯৬৬১০১৭, নাজিমুল (ব্যাচ নং -৮) মো:০১৮১১৯৩৪৩০, ওয়াদুদ (ব্যাচ নং -৮) মো: ০১৭১১০৩৩৬১৬, নুরুল (ব্যাচ নং -৪) মো: ০১৭৫৭৩০১৮৮৬, মামুন (ব্যাচ নং -১০) মো: ০১৭১২৮৬৩৩৩২, তৌফিক (ব্যাচ নং -১) মো:০১৯১১২৩৩১৩৩, নেহাল (ব্যাচ নং -১১) মো: ০১৭১২৭৭৯৬৮৮, সিয়াম (ব্যাচ নং -১১) মো:০১৬৭৭০১২৭২২, গাউস (ব্যাচ নং -৯) মো: ০১৭০৮১১৯১৭৭, তৌসিফ (ব্যাচ নং -১) মো:০১৬২০৭৯২২৫, সবুর (ব্যাচ নং -১২) মো:০১৭২২৮২২৩৬৩। এছাড়া সার্বিক বিষয়ে যোগাযোগ করতে ইএসডিপি  ঢাকা জেলার প্রশিক্ষন সম্মন্বয়ক আল্পনা ফেরদৌসী বীথির সাথে যোগাযোগ করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এদিকে ইএসডিপি সূত্র জানায়, সারাদেশে প্রকল্পটির কার্যালয় চালু রয়েছে। আর কার্যালয়গুলোর মাধ্যমে প্রতি ব্যাচে ২৫ জন করে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। জেলার সফল ব্যবসায়ী, কর কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসকারি কর্মকর্তাদের দিয়ে এই প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। গতবছরের মার্চ মাসে শুরু হওয়া করোনা পরিস্থিতিতে অল্প কয়েকদিন প্রকল্পের কার্যক্রম কিছুটা স্থিমিত হলেও পরবর্তীতে অনলাইনে শুরু হয় প্রশিক্ষণ কার্যক্রম। যা এখনো চলমান। প্রকল্পের অধীনে কেউ প্রশিক্ষন নিতে চাইলে প্রথমে তাকে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। আবেদনকারীদের প্রাথমিক সাক্ষাৎকার নেওয়ার মাধ্যমে প্রশিক্ষণার্থী বাছাই করে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠিত হয়। আর এরপরই শুরু হয় প্রশিক্ষণ কার্যক্রম। প্রশিক্ষণ শেষে উদ্যোক্তা বা তার ব্যবসার ধরণ বুঝে তাকে প্রয়োজনীয় সকল সহযোগিতা করে থাকেন প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা। এসব সহযোগিতার মধ্যে উদ্যোক্তা নিবন্ধন, লাইসেন্সসহ প্রয়োজনীয় সকল ডকুমেন্টস তৈরি, মার্কেট প্লেস তৈরি, ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা, সফল উদ্যোক্তাদের সঙ্গে সম্পর্ক সৃষ্টি করে দেওয়াসহ আরো অনেক সুযোগ সুবিধা প্রদান করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ইতিমধ্যে ইএসডিপির ৬৪টি জেলা কার্যালয় থেকে ২০ হাজার ৮০০ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। আর প্রশিক্ষণ নিয়ে দুই বছরে উদ্যোক্তা হয়েছেন ৩,৬৭০ জন। এছাড়া বিভিন্ন প্রকল্পে এসব উদ্যোক্তারা বিনিয়োগ করেছেন ৯৮৫ কোটি টাকা। যার ফলে কর্মসংস্থান হয়েছে ৩২ হাজার মানুষের।

বিডার কর্মকর্তারা জানান, যেখানে আন্তর্জাতিক সমীক্ষা অনুযায়ী প্রশিক্ষণ-পরবর্তী উদ্যোক্তা হওয়ার হার ১ থেকে ২ শতাংশ, সেখানে এই প্রকল্পের মাধ্যমে উদ্যোক্তা হওয়ার হার ২০ শতাংশ।

জানতে চাইলে বিডার উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক আবুল খায়ের মোহাম্মদ হাফিজুল্লাহ খান বিনিয়োগবার্তাকে বলেন, ‘বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ বাড়াতে শিক্ষিত বেকার যুবকদের আমরা টার্গেট করি। দুই বছরে ২৪ হাজার শিক্ষিত বেকারকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। ইতোমধ্যে আমরা লক্ষ্যমাত্রা পূরণ প্রায় শেষ পর্যায়ে। প্রকল্পটিতে ব্যাপক সাফল্য আসায় এটি আরও সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, প্রকল্প থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে উদ্যোক্তা হয়েছেন এমন উদ্যোক্তাদের নিয়ে ‘সহস্র উদ্যোক্তা সম্মেলন’ আয়োজন করার প্রস্তুতি চলছে। আগামী এপ্রিলে এ সম্মেলনটি আয়োজনের লক্ষ্যে কাজ চলছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্তৃপক্ষসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

(এসএএম/২৫ জানুয়ারি ২০২১)

 

Short URL: https://biniyougbarta.com/?p=135845

সর্বশেষ খবর